আজ- বৃহস্পতিবার, ১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Shotto Barta Logo

শিরোনাম

গুরুদাসপুরে ১৮ শ’ কৃষকের মাঝে বিনামুল্যে আউস বীজ ও সার বিতরন উদ্বোধন

সত্যবার্তা ডেস্ক :

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলায় চলতি ২০২১-২০২২ অর্থ বছরে খরিপ-১ মৌসুমে আউস ধান উতপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ১৮ শ’ জন কৃষকের মাঝে কৃষি প্রনোদনা কর্মসুচির আওতায় বিনামুল্যে বীজ ও সার বিতরন কর্মসুচির আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস।
উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা মোঃ তমাল হোসেনের সভাপতিত্বে আজ ১১ এপ্রিল বেলা ১০ টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত কৃষি প্রনোদনা কৃষি কর্মসুচির আওতায় কৃষকদের মাঝে বিনামুল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতর কার্যক্রম ওই উদ্বোধনি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস বলেন, বিএনপি খালেদা সঅরকার ৯১র নির্বাচনে ক্ষমতায় এসে ৪০ লাখ মেট্রিক টন খাদ্য ঘাটতি রেখে ছিল। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগ সরকার ৯৬ সালে ক্ষমতায় এসে সেই ঘাটতি পুরন করে ২০০১ সালে ২৭ লাখ মেট্রিক টন খাদ্য উদ্বৃত্ব রেখে যায়। ২০০১ সালে বিএনপি আবারো ক্ষমতায় এসে সারের দাবিতে জয়পুর হাটে আন্দোলনকারি ১৮ জন কৃষককে গুলি করে হত্যা করে। ২০০৮ সালে বিএনপি সরকার পুনরায় দেশে খাদ্য ঘাটতিতে রেখে যায়।২০০৮ সালে জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার পুনরায় ক্ষমতায় এসে পর পর দুই বছর বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯ মোকাবেলা করেও বিএনপির রেখে যাওয়া ওই ঘাটতি পুরন করে সাড়ে ১৫ লাখ মেঃ টন উদ্বৃত্ব খাদ্য মজুদ করে রেখেছ। প্রধানমন্ত্রি শেখ হাসিনার সরকার কৃষিবান্ধব দুরদর্শি পদক্ষেপের কারনে বাংলাদেশ নানা প্রতিকুলতা মোকাবেলা করেও আজ বিশ্বের দরবারে উদ্বৃত্ব খদ্য উতপাদনের দেশ হিসেবে পরিচিত। তাই বিদেশী অর্থনীতিবিদরাও স্বীকার করেছেন বাংলাদেশের উন্নয়নে সঠিক পথেই চলেছে।
উপজেলা কৃষি সম্প্রসারনের আয়োজনে ও উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন , উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন, পৌর মেয়র শাহনেওয়াজ আলী, ভাইস চেয়ারম্যান আলাল শেখ ও রোকসানা আকতার লিপি। স্বাগত বক্তব্য দেন উপজেলা কৃষি অফিসার হারুনর রশিদ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন এইও মো; মতিয়ার রহমান।
উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অফিসের তথ্যে জানা যায়, প্রতি কৃষক ১ বিঘা জমির আউস ধান আবাদের জন্য উপকরন সহায়তা বাবদ ৫ কেজি বীজ, ২০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার সহায়তা পাচ্ছেন। পৌরসভা ও ইউনিয়নভিত্তিক উপকারভোগি কৃষকের সংখ্যা হচ্ছে- পৌরসভায় ২৭০, নাজিরপুর ইউনিয়নে-২৫০, বিয়াঘাট ইউনিয়নে ২০০, খুবজিপুর -২০০, মশিন্দা-২৫০, ধারাবারিষা-৩৩৫ এবং চাপিলা ইউনিয়নে- ২৯৫ জন সহ মোট ১৮০০ জন।

শেয়ার করুন :

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

এই রকম আরোও খবর

সাক্ষাৎকার