আজ- বৃহস্পতিবার, ২৫শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
Shotto Barta Logo

শিরোনাম

সিংড়ায় বিভিন্ন স্থানে মাটি বিক্রির হিড়িক, নীরব ভূমিকায় প্রশাসন!

সিংড়া উপজেলা সংবাদদাতা:

আলিফ বিন রেজা:

নাটোরের সিংড়ায় বিভিন্ন স্থানে ফসলি জমি ও পুকুর সংস্কারের নামে মাটি কাটার হিড়িক পড়েছে। যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়েই একটি অসাধু চক্র প্রকাশ্যে অবৈধভাবে মাটি কেটে বিক্রি করছে এলাকার বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে। এসব মাটি ট্রলি ও ট্রাকসহ বিভিন্ন গাড়িতে নিয়ে যাবার সময় সড়কে পড়ছে। আবার এস্কেভেটর (ভেকু) দিয়ে পুকুর খনন করে মাটি বিক্রি করা হলেও এ বিষয়ে কারো কোনো মাথা ব্যথা নেই। এতে স্থানীয় সড়ক নষ্ট হচ্ছে। আর প্রশাসনের নীরব ভূমিকায় ক্ষুব্ধ সাধারণ মানুষ।

 

শনিবার (১৫এপ্রিল) দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, সিংড়া পৌরসভার দমদমা, রামানন্দ ইউপির বি-গলগিয়া ও চামারি ইউপির সেনাপুর বাহাদুর পুর গ্রামের মধ্যবর্তী মাঠ থেকে এস্কেভেটর মেশিন দিয়ে মাটি কেটে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করছেন। মাটি নিয়ে যাওয়ার কারণে আশপাশের ফসলি জমি ও সড়ক ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

 

উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের জানানোর পর তারা পুকুর খনন বন্ধ করে দিলেও কিছুদিন পর মাটি ব্যবসায়ীরা আবার মাটি কাটা শুরু করেন।

 

এভাবেই ফসলি জমিতে পুকুর খনন আর মাটি বিক্রির উৎসব চলছে। অনেকে আবার দিনে মাটি না কেটে রাতের আঁধারে মাটি কেটে বিক্রি করছেন। কিন্তু প্রশাসনের নজরদারিতেও বন্ধ হচ্ছে না মাটি কাটা ও বিক্রির ব্যবসা।

 

এ বিষয়ে সিংড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আল ইমরান বলেন পুকুর খনন বন্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 

তবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহমুদা খাতুন বলেন, মাটি কাটার তো অনুমতি নেই। আমরা অভিযোগ পেলে অভিযান পরিচালনা করি। কখনও পুলিশ পাঠিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হয়। সমস্যা হলো কিছুদিন পর আবার শুরু করে। কিংবা একজনকে বন্ধ করলে অন্য জায়গায় অন্য কেউ মাটি কাটা শুরু করে। এখানে আরেকটি সমস্যা হলো মাটির দরকার, কিন্তু মাটি পাওয়া যাচ্ছে না। এমন অবস্থায় বেপরোয়াভাবে মানুষ মাটি কাটা ও বিক্রি করছে। আপনারা আমাদের তথ্য দেন, আমরা ব্যবস্থা নেব।

শেয়ার করুন :

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

এই রকম আরোও খবর

সাক্ষাৎকার